Text size A A A
Color C C C C
পাতা

প্রকল্প

মংলা বন্দরের সাম্প্রতিক উন্নয়ন (২০০৮-০৯ হতে ২০১৩-১৪)ঃ 

মংলা বন্দর উন্নয়নের জন্য সরকার ও নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয় বিশেষ গুরম্নত্ব ও অগ্রাধিকার প্রদান করেছে। বন্দর উন্নয়নের জন্য  বর্ণিত সময়ে মোট ৪৮৯ কোটি ৬৩ লক্ষ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে ৮টি উন্নয়ন প্রকল্প বাসত্মবায়নের কাজ হাতে নেয়া হয়। যার মধ্যে ৫টি প্রকল্প ইতোমধ্যে সমাপ্ত হয়েছে এবং ২টি প্রকল্প বাসত্মবায়নাধীন আছে। এছাড়া মংলা বন্দরের আরও উন্নয়নের জন্য রাজস্ব বাজেটের আওতায় ৩২ কোটি ৬০ লক্ষ ৪১ হাজার টাকা ব্যয়ে ৪টি উন্নয়ন কর্মসূচি বাসত্মবায়নের জন্য হাতে নেয়া হয়েছে। যার মধ্যে ২টি কর্মসূচি সম্পন্ন হয়েছে এবং ২টি কর্মসূচি বাসত্মবায়নাধীন আছে।

উন্নয়ন প্রকল্পঃ

(ক) সমাপ্তকৃত প্রকল্পঃ

·        ঘূর্ণিঝড়, সিডর ২০০৭ এ ক্ষতিগ্রস্থ বিভিন্ন অবকাঠামোসহ অন্যান্য সুবিধাদিও পুনঃ নির্মাণ ও পুনর্বাসন ।

·        মংলা বন্দরের জন্য কার্গো হ্যান্ডলিং যন্ত্রপাতি সংগ্রহ

·        পোর্ট এন্ড লজিষ্টিক ইফিসিয়েন্সি ইম্প্রুভমেন্ট

·        মংলা বন্দরের জন্য কাটার সাকশান ড্রেজার, পাইলট ও ডেসপাচ বোট সংগ্রহ।

·        নেভিগেশনাল এইডস্ টু মংলা পোর্ট।

 (খ)  চলমান প্রকল্পসমূহঃ

·        মংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলের হারবার এলাকায় ড্রেজিং

·        পানি সম্পদ মন্ত্রণালয় এবং নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের জন্য আনুসঙ্গিক সরঞ্জামাদি ও সুবিধাদিসহ ৬টি ড্রেজার সংগ্রহ (বিআউডবিস্নউটিএ-৩টি, বিডবিস্নউডিবি- ২টি এবং মংলা বন্দর- ১টি)

·        মংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলের আউটার বারে ড্রেজিংঃ

 

(গ)  অনুমোদন প্রক্রিয়াধীন প্রকল্পঃ

 

·        কন্টেইনার ও কার্গো হ্যান্ডলিং যন্ত্রপvাত সংগ্রহ।

রাজস্ব বাজেটের আওতায় উন্নয়ন কর্মসূচিঃ

(ক) সমাপ্তকৃত উন্নয়ন কর্মসুচিঃ

·        মংলা বন্দরের প্রধান সড়ক ও বাইপাস সড়ক উন্নয়ন

·        মংলা বন্দরের জেটি, ইয়ার্ড, শেড এবং সংযোগ সড়কের উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ

(খ) চলমান উন্নয়ন কর্মসুচিঃ

·        মংলা বন্দরের বিভিন্ন স্থাপনায় বিদ্যুৎ উৎপাদনের জন্য সৌর প্যানেল স্থাপন

·        মংলা বন্দরে আমদানিকৃত গাড়ি রাখার জন্য ইয়ার্ড নির্মাণ

(গ)  অনুমোদন প্রক্রিয়াধীন কর্মসুচিঃ

·        পাট ও পাটজাত পণ্য ষ্টাফিং ও আনষ্টাফিং এর জন্য শেড নির্মাণ;

·        মংলা বন্দরের জেটি অভ্যমত্মরে নিরবিচ্ছিন্ন বিদ্যুৎ সরবরাহ নিশ্চিতকল্পে ১০০০ কেভিএ জেনারেটর স্থাপন এবং সংশিস্নষ্ট বিদ্যুৎ উপকেন্দ্র সমূহের উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ;

·        মংলা বন্দরের খুলনাস্থ রম্নজভেল্ট জেটি, ইয়ার্ড, শেড এবং সংযোগ সড়কের উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ কাজ;

·        মংলা বন্দরের সংরক্ষক্ষত এলাকায় কন্টেইনার ইয়ার্ডের উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ;

·        মংলা বন্দরের বিভিন্ন আবাসিক ভবন, অফিস ভবন ও অন্যান্য গুরম্নত্বপুর্ণ স্থাপনায় সার্বিক উন্নয়ন ও সম্প্রসারণ।

 

উন্নয়ন প্রকল্প ও কর্মসুচির অধীনে সৃষ্ট সুবিধাদিঃ

 

·         মংলা বন্দরে মালামাল দ্রম্নত ও দক্ষতার সাথে হ্যান্ডলিং এর জন্য ২টি ষ্ট্রাডেল ক্যারিয়ার, ৬টি ফর্কলিফট ট্রাক, ২টি টার্মিনাল ট্রাক্টর ও ২টি কন্টেইনার ট্রেইলর সংগ্রহ করা হয়েছে।

·        সিডর’২০০৭ এ ক্ষতিগ্রস্থ জ্যাফর্ড পয়েন্টে লাইট টাওয়ার পুনঃনির্মাণসহ বন্দরের বিভিন্ন ক্ষতিগ্রস্থ স্থাপনাদি পুনর্বাসন/পুনঃ নির্মাণ করা হয়েছে।  

·        মংলা বন্দরে দিবারাত্রি নির্বিঘ্নে জাহাজ আগমণ ও নির্গমনের জন্য  ৬২টি বিভিন্ন ধরনের লাইটেড বয়া, ২টি রোটেটিং বীকন এবং ৬টি জিআরপি লাইট টাওয়ার ও আনুসঙ্গিক যন্ত্রপাতি সংগ্রহ পূর্বক মংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলে স্থাপন করা হয়েছে। ফলে মংলা বন্দরে পুনরায় নাইট নেভিগেশন শুরম্ন হয়েছে।

·        মংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলের ক্যাপিটাল ড্রেজিং এর অর্জিত সাফল্য ধরে রাখা এবং নব্যতা সংরক্ষণের জন্য নিয়মিত  ড্রেজিং কার্য পরিচালনার জন্য  ১টি ক্রেন বোট, ১টি হাউজ বোট, পাইপ, ফ্লোটার পাইপ সহ ১টি কাটার সাকশান ড্রেজার সংগ্রহ করা হয়েছে।

·        মংলা বন্দরে আগত জাহাজ সুষ্ঠু ও দ্রম্নততার সাথে হ্যান্ডলিং এর লক্ষক্ষ্য মংলা হতে হিরণপয়েন্ট পর্যমত্ম পাইলট আনা নেয়ার নিমিত্তে ১টি পাইলট বোট ও ১টি পাইলট ডেসপাচ বোট সংগ্রহ করা হয়েছে।

·        মংলা বন্দরের যান চলাচলে অনুপযোগী প্রায় ১০ কিঃমিঃ প্রধান সড়ক ও বাইপাস সড়ক মেরামত ও উন্নয়ন করা হয়েছে।

·        পানি নিস্কাশন ব্যবস্থা উন্নয়নের জন্য কালভার্ট নির্মাণসহ ড্রেন সংস্কার ও পুনঃ নির্মাণ করা হয়েছে।

·        মংলা বন্দরের মাধ্যমে আমদানিকৃত গাড়ি রাখার জন্য সংযোগ সড়কসহ ১টি ইয়ার্ড নির্মাণ করা হয়েছে।

·        রম্নজভেল্ট জেটি ব্যবহার উপযোগী ও উন্নয়নের জন্য পন্টুন, গ্যাংওয়ে নির্মাণ ও স্থাপন করা হয়েছে এবং  শ্রমিকদের জন্য চিকিৎসা সুবিধা প্রদান করা হয়েছে।  

চলমান কার্যক্রমসমূহঃ

·        মংলা বন্দরের পশুর চ্যানেলের হারবার এলাকায় ড্রেজিং শীর্ষক প্রকল্পের অধীনে ১৩২ কোটি টাকা ব্যয়ে  মোট ৪১.৯৬ লক্ষ ঘনমিটার ড্রেজিং কাজ সম্পাদনের জন্য বিগত ২৫ আগষ্ট ২০১৩ তারিখে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। উক্ত ড্রেজিং কাজ আগামী জুন ২০১৪ এর মধ্যে সমাপ্তির জন্য নির্ধারিত আছে।

·        মংলা বন্দরের মুরিং এলাকায় ৯ মিটার ড্রাফটের জাহাজ আগমণ নির্গমণের লক্ষক্ষ্য পশুর চ্যানেলের আউটার বারে ড্রেজিং শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় মোট ৩১.৯৯ লক্ষ ঘনমিটার ড্রেজিং কার্য সম্পাদনের জন্য ১২২ কোটি ৮১ লক্ষ ৬৯ হাজার টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে একটি প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। প্রকল্পটির অনুমোদন প্রাপ্তির লক্ষক্ষ্য  EIAসম্পন্ন করা হয়েছে এবং পরিবেশ অধিদপ্তর হতে নো অবজেকশন সার্টিফিকেট পাওয়া গেছে।  সংশোধিত প্রকল্পটি একনেকে অনুমোদনের প্রক্রিয়াধীন আছে।

·        ভারত সরকারের লোন অফ ক্রেডিট এর আওতায় মংলা বন্দরের জন্য ১০৪ কোটি ২৬ লক্ষ টাকা প্রাক্কলিত ব্যয়ে ১টি ড্রেজার, ১টি টাগ বোট, ২টি হাউজ বোট, পাইপ, ফ্লোটার ইত্যাদি সংগ্রহের জন্য বিগত ২০ জুলাই ২০১৩ তারিখে চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। প্রসত্মাবিত ড্রেজারটি সংগ্রহ করা হলে উক্ত ড্রেজার দ্বারা সারা বছর ব্যপি প্রয়োজন অনুযায়ী রক্ষণাবেক্ষন ড্রেজিং এর মাধ্যমে বন্দরের নাব্যতা সংরক্ষণ করা আরও সহজ হবে। কাজটি ডিসেম্বর ২০১৩ এর মধ্যে সম্পন্ন হবে।

·        মংলা বন্দরের মাধ্যমে আমদানিকৃত গাড়ি রাখার স্থান সংকুলান না হওয়ায় আরও ১টি ইয়ার্ড নির্মাণের কাজ চলছে।


 

 

·        বন্দরের বিভিন্ন দুরবর্তী স্থাপনায় ৮০ কিলোওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন ও বিতরণের জন্য সৌর প্যানেল স্থাপনের কার্যক্রম চলছে। কাজটি ডিসেম্বর ২০১৩ এর মধ্যে সম্পন্ন হবে।

 

মংলা বন্দরের ব্যবহার বৃদ্ধিকল্পে গৃহীত পদক্ষক্ষপঃ

 

·        মংলা বন্দরের জন্য বিভিন্ন ধরনের কার্গো ও কন্টেইনার হ্যান্ডলিং যন্ত্রপাতি সংগ্রহ করা  হয়েছে।

·        মংলা বন্দরের একটি নিজস্ব ড্রেজার ক্রয়ের পদক্ষক্ষপ গ্রহণ করা হয়েছে ।

·        নেভিগেশনাল যন্ত্রপাতি সংগ্রহ এবং উহা চ্যানেলে প্রতিস্থাপন করা হয়েছে ।

·        কার পার্কিং ইয়ার্ড নির্মাণ করা হয়েছে ।

·        বন্দরের মহাসড়ক ও বাইপাস রাসত্মা মেরামতের পদক্ষক্ষপ গ্রহণ করা হয়েছে ।

·        পশুর চ্যানেলের বিভিন্ন স্থানে ক্যাপিটাল ড্রেজিং এর জন্য প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে।

·        মংলা বন্দরের উন্নয়ন ও দক্ষতা বৃদ্ধির জন্য উপদেষ্টা কমিটি গঠন করা হয়েছে।

·        মংলা বন্দরের মাধ্যমে গাড়ি আমদানির পদক্ষক্ষপ নেয়া হয়েছে ।

·        সরকারী পর্যায়ে আমদানিকৃত খাদ্যশস্যের ৪০% মংলা বন্দরের মাধ্যমে খালাসকরণের ব্যবস্থা গ্রহণ করা হয়।

·        সার আমদানির ৪০% মংলা বন্দরের মাধ্যমে খালাস নিশ্চিত করা হয়।

·        আমদানিকৃত কাঠ এ বন্দরের মাধ্যমে খালাসকরণের পদক্ষক্ষপ নেয়া হয়।

·        মংলা বন্দরের মাধ্যমে ঢাকা কেন্দ্রিক মালামাল পরিবহনের জন্য মাওয়া কাওড়াকান্দি রম্নটে উন্নত ফেরী চালুর ব্যবস্থা নেয়া হয়।

·        জনবলের স্বল্পতা দুর করার জন্য নতুন জনবল নিয়োগ করা হয়েছে

·        বিলুপ্ত ডক শ্রমিক ব্যবস্থাপনা বোর্ডের কর্মকর্তা কর্মচারীগণকে মংলা বন্দরের রাজস্ব খাতে আত্মীয়করণ করা হয়েছে।

·        বন্দরের শ্রমিক অসমেত্মাষ দুরীকরণের জন্য শ্রমিকদের বকেয়া পাওনা পরিশোধ করা হয়েছে।

·        কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের কর্মস্পৃহা বৃদ্ধির লক্ষক্ষ্য পদোন্নতি প্রদান করা হয়েছে।

·        জনবলের স্বল্পতা দুর করার  জন্য নতুন জনবল নিয়োগ করা হয়েছে।

·        বন্দরে কর্মরত কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের মানসিক উৎকর্ষতা বৃদ্ধির জন্য বিভিন্ন সামাজিক কার্যক্রম গ্রহন করা হয়েছে।

·        পরিবেশ উন্নয়নের জন্য পর্যাপ্ত বৃক্ষ রোপণ করা হয়েছে ।